অর্থনিতি:

রোহিঙ্গা গণহত্যার ঘটনায় ২০১৯ সালে তাকে

সূচি আপুকে সেনাবাহিনী গায়েব করে দিয়েছে। যে কোন সময় রোহিঙ্গাদের সাথে বাংলাদেশে পুস-ইন করতে পারে। ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের মাঝে তার জন্য একটা বসতি এর ব্যাবস্থা রাখার আহব্বান করছি।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারে অং সান সু চি’র দল এনএলডি ব্যাপক জনপ্রিয় হলেও সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার ক্ষেত্রে তার সমর্থনের কারণে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে সু চি ও তার দলের ভাবমূর্তির ব্যাপক অবনতি হয়েছে।

রোহিঙ্গা গণহত্যার ঘটনায় ২০১৯ সালে তাকে আন্তর্জাতিক আদালতেও (আইসিজে) হাজির হতে হয়েছিল। শুনেছি ‘পাপ ছাড়ে না বাপকে’ এবার দেখছি পাপ মা’কেও ছাড়ে না। আজ সেই সেনাবাহিনীই তাকে গিলে ফেলল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button