Uncategorized

তারপর রুম থেকে বেরিয়ে আসলাম

💔ভালোবাসি_হয়নি_বলা�

পর্বঃ১১+১২

উনার ঠোঁট দুটো আমার ঘাড়ে গভীরভাবে বসিয়ে দিলেন,, এবং একের পর এক কিস করতে লাগলেন

উনি আমাকে ঘুরিয়ে আমার ঠোঁট জোড়া উনার ঠোঁট দিয়ে আঁকড়ে ধরলেন

আমি শুধু অবাক হয়ে তাকিয়ে আছি ছি এসব কি হচ্ছে এতক্ষণ তো ভালোই ছিল এখন আবার কি হলো ওনার

উনি হঠাৎ করে ওনার হাত দিয়ে আমার পেটে স্লাইড করতে লাগলেন

আমিঃ আপনি ঠিক আছেন তো নাকি,
এ সব কি করতেছেন

আমার কথা মনে হয় উনার মাথার উপর দিয়ে যাচ্ছে তাই কোন রেসপন্স দিচ্ছে না আমার কথায়,
উনি ওনার মত সব কাজ করে চলছে

আমার খুব বিরক্ত লাগছে কিছু বলতে পারতেছি না,,, সইতে ও পারতেছি না, এমন অবস্থায় পড়ে গেছি না পারি ধরতে না পারি ছাড়তে,

আমি আর সহ্য করতে না পেরে জোরো একটা ধাক্কা দিলাম, আর আমার ধাক্কায় টাল সামলাতে না পেরে নিচে পড়ে গেলেন

উনি মনে হয় এতক্ষণ একটা ঘোরের মাঝে ছিলেন আমার ধাক্কা খেয়ে উনি একটু সোজা হয়ে দাঁড়ালেন এবং মাথাটা নীচু করে ফ্লোরের দিকে তাকিয়ে আছে আমার দিকে তাকাচ্ছেন না ব্যাপারটা বুঝলামনা ওনার হয়েছেটা কি

আমিঃ আপনি ঠিক আছেন তো নাকি আপনার কি কিছু হয়েছে আমাকে একটু শেয়ার করবেন

মাহিনঃ হ্যাঁ আমি একদম ঠিক আছি আমার কিছু হয়নি

আমিঃ তাহলে হঠাৎ করে এরকম অদ্ভুত কান্ড করার কি আছে

মাহিনঃ আসলে…….

আমিঃ কি আসলে বলতেছেন আপনার হয়েছে টা কি আমাকে বলবেন একটু নাকি আমাকে বলা যায় না আপনার কি হয়েছে আর আমি তো আপনার সম্পর্কে কিছুই জানিনা আজ পর্যন্ত, শুধু আপনার নামটা জানি আর কিছু জানি না

মাহিনঃ সময় হলে সব জানতে পারবেন, এখন কি করতে এসেছেন সেই কাজগুলো তাড়াতাড়ি করে নিন

আমিঃ আপনাকে আমি কোনদিনও বুঝতে পারব না আমি বুঝে গেছি যে আপনি কখন কি করবেন সেটা আমার ধারনার বাইরে থাকবে, আপনাকে বোঝা বড় দায়

মাহিনঃ আরে সেরকম কিছু না, এখন বলুন আমাকে কিছু হেল্প করতে হবে, করতে হলে করি না হলে আমি গাড়িতে গিয়ে বসে থাকি

আমিঃ পা ভেঙ্গে হাতে ধরিয়ে দেবো এক পা এখান থেকে নরলে আমি কি আপনাকে বলতেছি যে আপনি আমাকে সাহায্য করতে হবে, না আপনি গাড়িতে গিয়ে বসে থাকেন, এত গাড়ি গাড়ি করেন কেন,
গাড়িতে কি, আপনার বউ আছে নাকি গাড়িতে,
যে গাড়ি ছাড়া আপনার কিছু ভালো লাগেনা

মাহিনঃ এসব কি বলতেছেন আপনার কি মাথা গেছে নাকি গাড়িতে বউ থাকবে মনে

আমিঃ তাহলে আপনার গাড়ি কি চোরে নিয়ে যাবে যে গাড়িকে সব সময় চোখে চোখে রাখতে হবে,
আপনার কোটি টাকা দামের গাড়ি হারিয়ে গেলে আর কিনতে পারবেন না তাই তো,
নাকি আমাদের গরিব ঘরে আপনার মন টিকছে না আচ্ছা তাহলে গাড়িতে গিয়ে বসে থাকেন

মাহিনঃ আপনি না সব সময় বেশি বোঝেন যার ফলে আমার রাগটাই আমি কন্ট্রোল করতে পারি না বুঝছেন

আমিঃ আপনার রাগ ধুয়ে আপনি পানি খান, আপনার রাগকে আর আমি ভয় পাই না বুঝছেন মিস্টার,
এখন আপনি আমাকে হেল্প করবেন আমি যেটা বলবো সেটাই করতে হবে নয়তো পা ভেঙ্গে হাতে ধরিয়ে দেবো

মাহিনঃ এসব কি কথা বাত্রা হচ্ছে,
আমার কিন্তু…

আমিঃ আমাকে একটু আদর করতে ইচ্ছা করতেছে করেন এই যে আমি আপনার সামনে এগিয়ে আসলাম নেন যেটা ইচ্ছে করে নেন

মাহিনঃ উফফফফ আচ্ছা সব বাদ দেন,
এখন বলেন কি করতে এখানে এসেছি আমরা

আমিঃ কালকে রাতে চোর ঢুকে ছিল কিনা তাই একটু দেখবো আর অনেকদিন থেকে ঘর গোছগাছ করা হয় না ঘর গুলো একটু গোছগাছ করব,
ভালোভাবে পরিষ্কার করব দেন গোসল করব তারপর নাস্তা করব তারপর একটু আড্ডা দেবো তারপর হসপিটালে যাব

মাহিনঃ চোরে কি আর নিয়ে যাবে বলেন, যদি কিছু নিয়ে গিয়ে থাকে তো আমি এনে দিচ্ছি

আমিঃ থাক আমি ভালো করে জানি আপনার অনেক টাকা আছে, এখন দেখি আমার বাসায় কি কি আছে না নাই আর আপনাকে অযথা টাকা খরচ করতে হযবে না

আমার টাকা আছে আমি কিনে আনতে পারব
আর আমার বাসায় তেমন কোনো দামি জিনিস নাই যেটা চোরে নিয়ে যাবে, এখন আমার সাথে সাথে আসুন একটু ঘর গুলো দেখি

মাহিনঃ আচ্ছা আপনি এরকম খোটা মার্কা কথা বলেন কেন সবসময় আমাকে বুঝি না,
একটু ভালোভাবে কথা বলেন, আমি তো ভালোভাবে কথা বলতে চাই আপনার সাথে

আমিঃ ওর। চোরের মায়ের বড় গলা আপনার কথায় আমার মাথা ঘুরাইতাছে

মাহিনঃ উফফফফ আপনি এসব কি আজব ধরনের কথাবার্তা বলেন না মাঝে মাঝে,
আমি কিছুই বুঝতে পারিনা

আমিঃ ওকে আপনাকে কিছুই বুঝতে হবে না,
এখন আমার সাথে আসেন ঘরগুলো গোছাতে হবে আপনি আমাকে সাহায্য করবেন,
বিছানা গুছিয়ে তার পর রুম ঝাড়ু দিবো,
তারপর কাপড় চোপড় গুছিয়ে রাখতে হবে সব কিছুতেই হেল্প করবেন চলেন

মাহিনঃ জো আজ্ঞা মহারানী

তারপর ওনাকে সাথে করে একটা রুমে প্রবেশ করলাম রুমে প্রবেশ করে দেখি সবকিছু অগোছালো হয়ে পড়ে আছে কোন কিছু গোছালো নেই

এই যে আপনি বিছানাটা গুছানো শুরু করে দেন
আর আমি কাপড় গুলো গুছিয়ে রাখি

আমার বলা কথামতো উনি বিছানায গোছাতে গেলেন কিন্তু দেখতে পাচ্ছি উনি ভালোমতো গোছাতে পারতেছে না হয়তো কোনদিন এরকম কাজ করেনি আজকে প্রথম করতেছে

উনার কান্ড দেখে আমার খুব হাসি হচ্ছে, অনেকবার এটা করতেছে ওটা করতেছে কিন্তু গোছাতে পারতেছে না শেষমেষ আমার দিকে অসহায় দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইল

আমিঃ কি পাচ্ছেন না তাইতো আপনার দ্বারা কিছুই করা সম্ভব না, শুধু আপনি রাগ করে উল্টাপাল্টা কাজেই করতে পারবেন, তাছাড়া অন্য কোন কাজ হবে না আপনার দ্বারা, বুঝতে পারছেন এখন আপনি

মাহিনঃ আরে বাবা এতো ঝাড়ি দেওয়ার কি আছে আমিতো চেষ্টা করলাম কিন্তু পারলাম না,
আমি তো এত বড় হয়েছি এখন ঐসব কাজ করিনি সব কাজ আম্মু করে দেয় নত বুয়া এসে করে দেয়

আমিঃ সেটাই তো বললাম আপনাকে দিয়ে আমার কোন কাজই হবে না বুঝছেন

আমিঃ এই যে দেখুন এই ভাবেই এইসব কাজ করতে হয় দেখে দেখে শিখে নিন ভবিষ্যতে কাজে লাগবে আপনার যে বউ হয়ে আসবে তাকে একটু সাহায্য করতে পারবেন

মাহিনঃ আমার ভবিষ্যতে বউ মানে বুঝলাম না কথাটা

আমিঃ এসব নিয়ে আমি এখন কোন কথা বলতে চাচ্ছি না এখন যেটা কাজ করতে এসেছি আমি সেটাই করি

তারপর কিছু বললেন না চুপচাপ আমার সাথে আমাকে হেল্প করতে লাগলেন,
এক এক করে তিনটা রুম ছিল 3: টাই গুছিয়ে রাখলাম

সব রুম গোছ গাছ করে দুজনে প্রায় ক্লান্ত হয়ে গেছি তাই শেষ রুমটা ভালো করে গুছিয়ে দুজনে বিছানায় গা এলিয়ে দিলাম

বিছানায় শুয়ে দুজনেই জোরে জোরে নিঃশ্বাস নিচ্ছি আমি হঠাৎ করে ওর দিকে আড়চোখে তাকিয়ে দেখি উনি আমার দিকে হা করে তাকিয়ে আছে
বুঝতে পারলামনা এভাবে তাকিয়ে থাকার কারণ কি

হঠাৎ করে দেখলাম আমার ওরনা নেই তাড়াহুড়ো করে ওরনা টা ঠিক করে ওনার মাথায় একটা চাটি মারলাম

মাহিনঃ উফফফফ এটা কি হলো আমি আপনাকে এত সাহায্য করলাম তার বদলে অন্য কিছু নয় মাইর পেলাম এটা কিন্তু ঠিক হল না

আমিঃ আপনি অন্য কিছুর যোগ্য না,
শুধু মাইর খাওয়ার যোগ্য

মাহিনঃ এখন আবার কি করতে হবে

আমিঃ কেন হাঁপিয়ে গেছেন নাকি
আপনি সুদু পুরুষ,
কোন কাজের না বুঝতে পারছেন

মাহিনঃ মানে কি বুঝাতে চাচ্ছেন আপনি

আমিঃ কচু😁😁😁

মাহিনঃ 😡😡😡😡

আমিঃ এই না না এখন রাগে আবার কিছু করিয়েন না😥😥😥

মাহিনঃ কেন করলে কি হবে😜😜

আমিঃ প্লিজ না না

তারপর উনি আমার কোন কথা না শুনেই একটা অঘটন ঘটিয়ে ফেল্লেন

চলবে ……



💔ভালোবাসি_হয়নি_বলা💔

লেখকঃmahin_al_islam

পর্বঃ১২

দেখেন এখন এসব কিছু হচ্ছে না এখন তাড়াতাড়ি উঠেন আর আমি রুম গুলা ঝাড়ু দেবো

মাহিনঃ উফফফফ সব সময় এত কাজ কাজ কাজ কাজ করলে কি চলবে

আমিঃ না সারা দিন আপনার সাথে আমি রোমান্স করি তাহলে সুন্দর চলবে তাই না

মাহিনঃ আপনি এত আনরোমান্টিক কেন বলেন তো আমার মতো রোমান্টিক হতে পারেন না

আমিঃ আমার আর খেয়ে দেয়ে কাজ নাই রোমান্টিক হই আমি,,,,আপনি থাকেন আপনার মত বেয়াদব,,,, 😢

বেয়াদব কথা বলেই জিভে কামড় দিলাম,
এটা আমি কি বললাম ধুর

মাহিনঃ আচ্ছা যান তাহলে আপনি আপনার কাজগুলো সেরে আসেন আমি একটু রেস্ট নেই আমার কিছু ভালো লাগতেছে না

আমিঃ একা একা শুয়ে থাকলে আরো খারাপ লাগবে এর থেকে ভালো আপনি আমার সাথে সাথে আসুন তাহলে দুজনে গল্প করতে করতে কাজ গুলো করবো আমার কাজ করতে ভালো লাগবে,
আর আপনার খারাপ মনটা ভালো হয়ে যাবে

মাহিনঃ আমার মন খারাপ তাতে আপনার সমস্যা কি, আমার মন খারাপ থাক,, তাই ভালো আপনি তো সেটাই চান, আমার মন সারা দিন খারাপ থাক,
আমি আপনার সাথে কথা না বলি বা আমি আপনাকে ডিস্টার্ব না করি আপনি এটাই তো চান তাই না?

আমিঃ দেখেন এরকম ছোট বাচ্চাদের মতো বারবার ঝগড়া লাগাবেন না আমার সাথে প্লিজ ;!

মাহিনঃ নিজের ছোট বাচ্চা আমাকে বলে ছোট বাচ্চা “”

আমিঃ আমাকে কোন দিক থেকে আপনার ছোট বাচ্চা মনে হয় বলুনতো 🤔

মাহিনঃ তাহলে আমাকে আপনার কোন দিক থেকে ছোট বাচ্চা মনে হয় 😊

আমিঃ উফফফ আপনি এত ঝগড়া শিখেছেন কোথা থেকে 😱

মাহিনঃ আপনার থেকেই শিখতেছি আস্তে আস্তে বুঝতে পারছেন ম্যাডাম 😁

আমিঃ তাহলে আমি আপনার শিক্ষক তাইতো তাহলে শিক্ষককে এখন থেকে সম্মান দিয়ে কথা বলবেন বুঝতে পারতেছেন 😎

মাহিনঃ আচ্ছা ম্যাডাম দিবনি অনেক অনেক সম্মান দেবো, এখন চলেন এরকম ঝগড়া করলে আপনার বাসার কাজ কিছুই হবে না 😊

তারপর অনেক খুনসুটি চললো আমাদের মাঝে খুনসুটির সাথে সাথে আমাদের কাজও শেষ হয়ে গেল বাসা একদম পরিষ্কার করে ফেললাম দুজনে 😍

এখন বাজলো আরেক ঝামেলা উনি নাকি টিউবয়েলে গোসল করতে পারেন না,,
এখন পরলাম আমি মহাবিপদে এত বড় মানুষটি বলে কিভাবে গোসল করতে হয় তা নাকি জানেনা 😢

মনডা চাইতাছে মাথায় তুলে একটা আছাড় দিয়ে মেরে ফেলি🤣

সব ঝামেলা এখান থেকেই শেষ হয়ে যাবে কিন্তু দুঃখের বিষয় আমার অতটা শক্তি নেই যে ওনাকে মাথার উপর তুলে নিচে ফেলে দিব😢😢😢

আমিঃ আচ্ছা আপনি এত বড় হয়েছেন কিভাবে বলুন তো আমি একটু শুনি

মাহিনঃ কি আজব মার্কা প্রশ্ন করতেছেন,
আপনি যেভাবে বড় হয়েছেন দিনে দিনে আমিও ঠিক সেইভাবে বড় হয়েছি 😢

আমিঃ তাহলে আমি টিউবয়েলে গোসল করতে পারলে আপনি পারেন না কেন 😁

মাহিনঃ সেটা আমাকে জিজ্ঞেস না করে আমার আম্মুকে জিজ্ঞেস করে গিয়ে 😭

আমিঃ মানে🤔

মাহিনঃ আমার আম্মু কেন আমাকে টিউবয়েলে গোসল করায়নি, আমি বড় হয়েছি টিউবয়েল কোন দিন গোসল করিনি 😌

আমিঃ ও মোর আল্লাহ তুমি উপর থেকে দড়ি ফালাও মুই এহান থেকে উপরে উইঠা যাই 😡

তারপর অনেক কষ্ট করে বালতিতে পানি তুলে ওনাকে গোসল করিয়ে দিলাম ,, আমি এই প্রথম কোনো পুরুষ মানুষকে গোসল করিয়ে দিলাম লজ্জা লজ্জা লাগতে ছিল,, কিন্তু কিছু করার নাই লজ্জার মাথা খেয়ে গোসলটা করিয়ে দিলাম 🙈🙈

আমিঃ এই যে আপনার গোসল করানো শেষ এখন আপনি রুমে গিয়ে আপনার জামা কাপড় গুলো পড়ে নেন আমি এখন গোসল করব 🙈😌

মাহিনঃ এটা আবার কেমন কথা আপনি আমার গোসল করনো দেখলেন আমি আপনার গোসল করনো দেখব না এটা কেমন কথা ❓❓😌

আমিঃ কিইইইইইইইইওঅঅঅঅ😡😡

মাহিনঃ এত চিৎকার করার কি আছে আমিতো সাধারণ একটা কথা বল্লাম, তার জন্য এত রেগে যাওয়ার কি আছে বা চিৎকার করার কি আছে 🤔

আমিঃ আপনার কাছে খুব সাধারন মনে হচ্ছে কিন্তু আমার কাছে অনেক কঠিন মনে হচ্ছে,
তাই আমি চিৎকার করছি, আর আপনি এখন বাহিরে যাবেন এটাই ফাইনাল 😡

মাহিনঃ যদি বাহিরে না যাই তাহলে 🤔

আমিঃ প্লিজ আমি আপনার পায়ে পড়ি আপনি এখন বাইরে যান, আমাকে শান্তি মত গোসল করতে দেন😑

মাহিনঃ আমি বাহিরে যাচ্ছি না যেতে পারি তবে আমার একটা শর্ত আছে যদি শর্ত পালন করতে পারেন তাহলে বাহিরে যাব আমি 😊😍

আমিঃ উফফফফ এখন আবার কিসের শর্ত লাগাবেন,,,আচ্ছা বলেন শুনি যদি মনের মত হয় তাহলে মানবো না হলে আজকে গোসল করব না 🤔

মাহিনঃ আমাকে এখন একটা পাপ্পি দিতে হবে এবং সেটা ঠোটে😍

আমিঃ না এটা আমার পক্ষে কখনোই সম্ভব হবেনা এর থেকে আমি গোসল না করে চলেন বাইরে চলেন🙈

মাহিনঃ যদি গোসল না করেন তাহলে পাঁচটা পাপ্পি দিতে হবে 😍😜

আমিঃ কিইইইইওঅঅঅঅ😡

মাহিনঃ জিইইইইইইইইই😁

আমিঃ এটা কেমন কথা গোসল করলে একটা গোসল না করলে পাঁচটা আজব ধরনের কথাবার্তা বাদ দিয়ে আপনি এখান থেকে চলে যান 😭

মাহিনঃ আমি কোথাও যাচ্ছি না এখন যদি রাজি থাকেন তো বলেন কোনটা করবেন,
আপনার ইচ্ছা ১টা না ৫ টা 😍😋

উফফফফ কী মহা ঝামেলায় পড়ে গেলাম রে বাবা এইরকম তেরা মানুষ আমি জীবনে কখনো দেখিনি 😢

মাহিনঃ এত কি ভাবতেছেন কোনটা করবেন😍

আমিঃ আচ্ছা এখান পাপ্পি দিব কিন্তু পাপ্পি পাওয়ার পর আমার দিকে না তাকিয়ে বাহিরে চলে যেতে হবে 🙈

মাহিনঃ ওকে😍

তারপর লজ্জা শরমের মাথা খেয়ে উনার ঠোঁটের মধ্যে আমার ঠোঁটদুটো ঢুকিয়ে দিলাম এবং কেমন জানি একটা অনুভূতি ফিল হচ্ছে এর আগে যেটা কখনো ফিল হয়নি আজকে কেন জানি হচ্ছে 🙈

কিছুক্ষণ পর ঝটপট করে ওনার ঠোঁট থেকে আমার ঠোঁট টা সরিয়ে নিলাম এমনি এমনি অন্যদিকে ঘুরে তাকালাম উনি বাইরে চলে গেলেন একটা মুচকি হাসি দিয়া 😀

তারপর আমি গোসল শেষ করে বাইরে আসলাম বাহিরে এসে দেখি উনি সবকিছু পড়ে রেডি আছেন হয়তো এখন যাওয়ার জন্য রেডী হচ্ছে 🤔

আমিঃ একি আপনি সব দেখি পরে রেডি হয়েছেন কোথাও যাচ্ছেন নাকি ❓

মাহিনঃ কোথাও যাচ্ছেন নাকি মানে আপনি যাচ্ছেন না ❓

আমিঃ মাত্র গোসল শেষ করলাম কিছু খাওয়া দাওয়া করি তারপর একটু রেস্ট নিয়ে তারপর যাবো 😚

মাহিনঃ আজকে বাসায় মানে এখানে খাওয়া দাওয়া হচ্ছে না, আমরা রেস্টুরেন্টে গিয়ে খেয়ে নেব তাড়াতাড়ি রেডি হয়ে বেরিয়ে আসে ☺

আমিঃ এই না টাকা খরচ করার কি দরকার আমরা তো বাসায় রান্না করে খেতে পারি তাইনা 😜

মাহিনঃ টাকা খরচ করার কি দরকার নাই 😡

আমিঃ আচ্ছা আমি যাচ্ছি খুব তাড়াতাড়ি রেডি হয়ে আসতেছি আপনি একটু বসেন 😌

এখন আর ঝগড়া করার কোন ইচ্ছা নাই কিছু বললেই ঝগড়া লেগে যাবে তাই যেমন আছি তেমন থাকাই ভালো

তারপর আমি রুমে গিয়ে কাপড় গুলো চেঞ্জ করলাম

নীল রঙের একটা জামা পড়লাম কপালে টিপ দিলাম হাল্কা সাজলাম

তারপর রুম থেকে বেরিয়ে আসলাম

রুম থেকে বেরিয়ে আমি ওনার কাছে আসলাম
ওনি যেটা করলেন আমার সাথে আমি কখনোই ভাবতে পারিনি উনি এরকম কাজ টা আমার সাথে এখন করবে

চলবে……..

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button